আমরা ১৫ মে পর্যন্ত ছুটি বৃদ্ধি করতে চাচ্ছি : প্রধানমন্ত্রী

করোনাভাইরাসের কারণে কয়েক দফায় সরকারি ছুটি বাড়ানো হয়েছে। আগামী ৫ মে পর্যন্ত সরকারি ছুটি থাকলেও তা আবার ১৫ মে পর্যন্ত করা হতে পারে। এমনটিই জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সোমবার (৪ মে) করোনাভাইরাস সংক্রমণ পরিস্থিতি নিয়ে রংপুর বিভাগের জেলাগুলোর সঙ্গে মতবিনিময়ের সময় তিনি এ কথা জানান।

তিনি বলেন, ‘এখানে ব্যবসা-বাণিজ্য সবকিছু একটু থমকে গিয়েছিল ইতোমধ্যে আমরা ছুটি ঘোষণা দিয়েছি। ৫ মে পর্যন্ত ছুটি ঘোষণা দিয়েছিলাম, সেটাকে আমরা ১৫ মে পর্যন্ত বৃদ্ধি করতে চাচ্ছি।’

করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতির মধ্যে অর্থনীতির চাকা গতিশীল করতে নির্দেশনা আসছে বলেও জানান তিনি। তিনি বলেন, ‘যেহেতু রমজান মাসে ব্যাপক কেনাবেচা চলতে পারে। তার জন্য দোকানপাট খোলা, যেহেতু রোজার সময় ইফতার কেনা, সেহরি খাওয়া বা রোজার মাসের বাজারঘাট করা- সেগুলো যাতে চলতে পারে। সেদিকে আমরা বিশেষভাবে দৃষ্টি রেখে সেগুলোর খোলা ও চালু রাখারও নির্দেশ দিয়ে দিয়েছি।’

তিনি আরো বলেন, ‘প্রতিটি জেলায়, বিভিন্ন জেলাভিত্তিক যেসব ছোটখাট শিল্প রয়ে গেছে, সেগুলো তারা চালাতে পারবেন। সেভাবে আমরা নির্দেশনা দিয়েছি। অর্থনীতির চাকাটা যাতে গতিশীল থাকে, সেখানে মানুষকে সুরক্ষিত রেখে, মানুষের স্বাস্থ্যের দিকে নজর রেখে সেগুলো যেন পরিচালিত হতে পারে, সে জন্য যাতে যথাযথ পদক্ষেপ নেয়া হয়, এ ব্যাপারে বেশ কতগুলো নির্দেশনা আপনারা শিগগিরই পাবেন। কেবিনেট ডিভিশন থেকে সেটা ঘোষণা দেয়া হবে।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘সরকারি অফিস-আদালত আমরা সীমিত আকারে চালু করে দিচ্ছি। যাতে মানুষের কষ্ট না হয়। সামনে ঈদ, ঈদের আগে কেনাকাটা, যা যা দরকার সেগুলো যাতে মানুষ করতে পারে। কিন্তু এখানে একটা জিনিস মাথায় রাখতে হবে খুব বেশি খোলামেলা সবার সাথে মেশা বা এক জায়গায় জড়ো হওয়া, বড় জনসমাগম করা- এই জায়গা থেকে সবাইকে মুক্ত থাকতে হবে। সেখানে কিন্তু সংক্রমিত হওয়ার সম্ভাবনা রয়ে গেছে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সর্বশেষ খবর