সাহেদ-সাবরিনাকে নিয়ে নতুন তথ্য দিল ডিবি

করোনাভাইরাসের নমুনা পরীক্ষার ভুয়া সার্টিফিকেট তৈরির অভিযোগে গ্রেফতার হয়েছেন রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান সাহেদ করিম ও জেকেজি হেলথকেয়ারের চেয়ারম্যান ও জাতীয় হৃদরোগ ইন্সটিটিউটের চিকিৎসক সাবরিনা এ চৌধুরী।

এবার সাহেদ-সাবরিনাকে নিয়ে নতুন তথ্য দিয়েছে ডিবি। সাহেদের ১০ দিনের রিমান্ডের দ্বিতীয় দিনে সংবাদ সম্মেলনে গোয়েন্দা পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়, শুধু স্বাস্থ্যখাতে দুর্নীতি নয় চিকিৎসকদের জন্য নিম্নমানের কোভিড সুরক্ষা সামগ্রী সরবরাহেরও প্রমাণ পেয়েছেন তারা।

ডিবি কর্মকর্তা বলেন, শুধু স্বাস্থ্যখাতে নয় অন্যান্য খাতেও প্রতারণা করেছেন। এছাড়া শিক্ষাখাতেও রয়েছে তার প্রতারণা। স্বাস্থ্যকর্মীদের যেসব প্রটেকটিভ জিনিস ব্যবহারের জন্য দেয়া হত, সেগুলো নিম্নমানের ছিল। এসব মানসম্মত না হওয়ায় আমাদের ধারণা ডাক্তাররা আক্তান্ত হয়েছেন।

অন্যদিকে ডা. সাবরিনা আরিফ চৌধুরীর দ্বিতীয় দফার রিমান্ডের প্রথম দিনে জিজ্ঞাসাবাদ বিষয়ে পুলিশ জানায়, চিকিৎসক হিসেবে প্রভাব খাটিয়েই দুর্নীতি করতেন তিনি।

তিনি আরো বলেন, সাবরিনা ডাক্তার হিসেবে তার যে ফেসভ্যালু, তার যে পরিচিতি সেটা চ্যালেঞ্জ করে বিভিন্ন জায়গায় প্রতারণা করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সর্বশেষ খবর