হাফতারকে তুরস্কের হুমকি, ‘পালানোর জায়গা পাবে না

লিবিয়ার বিদ্রোহী নেতা জেনারেল খলিফা হাফতারকে কঠোর হুঁশিয়ারি দিয়েছে তুরস্ক। লিবিয়ায় মোতায়েন তুর্কি অবস্থানে হামলা চালালে হাফতারের অনুগত বিদ্রোহী গেরিলারা তুরস্কের বৈধ লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত হবে বলে হুশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন দেশটির প্রতিরক্ষামন্ত্রী হালুসি আকার।

রোববার (২৭ ডিসেম্বর) লিবিয়ায় মোতায়েন করা তুর্কি সেনাদের সঙ্গে সাক্ষাতের সময় তিনি বলেন, হাফতার একজন যুদ্ধাপরাধী, খুনি এবং তার সমর্থকদের অবশ্যই জানতে হবে যে, তুরস্কের সেনাদের ওপর হামলা হলে তারা বৈধ লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত হবে।

পার্স টুডের খবরে বলা হয়েছে, জেনারেল হাফতার কয়েকদিন আগে লিবিয়ায় মোতায়েন তুর্কি সেনাদের ওপর হামলার হুমকি দিয়েছিলেন। এর জবাবে তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করলেন।

তুর্কি প্রতিরক্ষামন্ত্রী আরো বলেন, যদি জেনারেল হাফতার ও তার সমর্থকরা তুরস্কের সেনাদের বিরুদ্ধে হামলা করার মতো কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ করে তাহলে তারা পালানোর জায়গা পাবে না।

জেনারেল হালুসি আকার বলেন, প্রত্যেকের জ্ঞান-বুদ্ধি হওয়া দরকার। লিবিয়ার সংকট নিরসনে সবাইকে রাজনৈতিক সমাধানের জন্য অবদান রাখতে হবে। এর বাইরে যে কোনো পদক্ষেপ ভুল বলে বিবেচিত হবে।

মার্কিন নেতৃত্বাধীন ন্যাটো বাহিনীর লিবিয়ায় অভিযান চালানোর পর ২০১১ সালে দেশটির সাবেক নেতা মুয়াম্মার গাদ্দাফি নিহত হন। এরপর থেকেই দেশটিতে গোলযোগ লেগে আছে। বর্তমান সংঘাতে একদিকে রয়েছে জাতিসংঘ স্বীকৃত ত্রিপোলিভিত্তিক জাতীয় সরকার এবং অন্যদিকে রয়েছে তবরুক শহরভিত্তিক জেনারেল খলিফা হাফতার নেতৃত্বাধীন বিদ্রোহী বাহিনী। তুরস্ক লিবিয়ার জাতীয় সরকারকে সমর্থন দিচ্ছে এবং লিবিয়ার পরিস্থিতি অনুকূলে আনার জন্য সেখানে সেনা মোতায়েন করেছে।

%d bloggers like this: